রবিবার, ১৪ এপ্রিল ২০১৯, ১০:৫৮ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
মহম্মদপুর প্রেসক্লাবের সভাপতি বিকো সাধারণ সম্পাদক মাহামুদুন নবী মাগুরায় সেই শিক্ষক ও সভাপতির দূর্নীতি দেখার কেউ নেই! মাগুরায় মহম্মদপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসের দূর্নীতি নিয়ে তোলপাড়! (পর্ব-১) মাগুরায় চাঞ্চল্যকর অধ্যক্ষ হত্যাকান্ড মূল হোতারা এখনও ধরা ছোয়ার বাহিরে মাগুরায় অধ্যক্ষ আবদুর রউফ হত্যার আসামীরা কোথায়? মাগুরায় প্রধান শিক্ষক ও সভাপতির স্কুল হয় জলসা ঘর মাগুরায় পান্নু চেয়ারম্যানের হাতুড়ীর আঘাতে অধ্যক্ষ আব্দুর রউফের মৃত্যু মাগুরায় মহিলা মাদ্রাসায় ক্লাব বানানোকে কেন্দ্র করে প্রতি পক্ষের হামলায় সুপারের মৃত্যু প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ ব্যালট বাক্স শিক্ষার্থীদের দেখিয়ে ভিডিও, পরে ভোট
‘বাবাকে চরিত্র ভালো করতে বলো, নচেৎ আমি আত্মহত্যা করব’

‘বাবাকে চরিত্র ভালো করতে বলো, নচেৎ আমি আত্মহত্যা করব’

স্বামীর বিরুদ্ধে কক্সবাজারের চকরিয়া থানায় মামলা করেছেন এক গৃহবধূ। তার অভিযোগ, মেয়েকে দুবার ধর্ষণ করেছেন তার স্বামী। এই অভিযোগ পেয়ে পুলিশ গতকাল বৃহস্পতিবার রাতে ওই ব্যক্তিকে (৪৫) গ্রেপ্তার করেছে।মামলার অভিযোগপত্রে ওই গৃহবধূ উল্লেখ করেন, নিজের মেয়েকে তার স্বামী দুবার ধর্ষণ করেছে। কিন্তু নিজের ও পারিবারিক সম্মান নষ্টের ভয়ে প্রথমে কাউকে কিছু জানায়নি সপ্তম শ্রেণিতে পড়ুয়া ওই ১২ বছরের কিশোরী। এক পর্যায়ে ভবিষ্যতে এমন আরও ঘটনা ঘটতে পারে-এ আশঙ্কায় সেই কিশোরী মাকে সব খুলে বলে। মাকে ওই কিশোরী বলে, ‘বাবাকে চরিত্র ভালো করতে বলো, নচেৎ আমি আত্মহত্যা করব।’ মেয়ের মুখে স্বামী সম্পর্কে এমন কথা শোনার পর ওই গৃহবধূর সন্দেহ হয়। তিনি গত বুধবার এ বিষয়ে মেয়ের কাছে বিস্তারিত জানতে চান। তখন কিশোরী মেয়ে তাকে কান্নাজড়িত কণ্ঠে জানায়, গত ৩ জুলাই রাত ৯টার দিকে বাড়ির অন্যরা বেড়াতে গেলে এবং ৫ জুলাই সকালে তিনি (মা) বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থায় (এনজিও) ঋণের টাকা দিতে গেলে দুদফা মেয়ের সঙ্গে বাবা খারাপ কাজ করে।মামলায় ওই কিশোরীর মা আরও উল্লেখ করেন, মেয়ের মুখে এসব শুনে তিনি স্বামীকে জিজ্ঞেস করেন। কিন্তু স্বামীকে জানালে ওই গৃহবধূকে হুমকি দেন তিনি। পরে স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের বিষয়টি জানান ওই কিশোরীর মা। তারাই বিষয়টি পুলিশকে জানায়। পরে পুলিশ গতকাল রাতে অভিযান চালিয়ে ওই কিশোরীর বাবাকে গ্রেপ্তার করেন।চকরিয়া থানা পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) ইয়াসির আরাফাত বলেন, জঘন্য ঘটনাটির বিষয়ে ভিকটিমের মা বাদী হয়ে থানায় মামলা দায়ের করেছেন। ভিকটিমকে ডাক্তারি পরীক্ষা করাতে কক্সবাজার সদর হাসপাতালের ওসিসিতে পাঠানো হয়েছে।এ বিষয়ে চকরিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. বখতিয়ার উদ্দিন চৌধুরী বলেন, গ্রেপ্তার হওয়া কিশোরীর বাবাকে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে পুলিশের কাছে বিষয়টি স্বীকার করেছেন। তিনি পুলিশকে বলেন, ‘আমার মাথায় শয়তান ঢুকেছিল, তাই এ অপকর্ম করেছি।’ তাকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানোর প্রক্রিয়া চলছে।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

© All rights reserved © 2018 crimekhobor.Com
Theme Download From ThemesBazar.Com